কুমুদিনী হাসপাতালে সরকারি নারী কর্মকর্তাকে শ্বাসরোধে হত্যা

প্রকাশিত: ১২:১০ অপরাহ্ণ, মার্চ ২৮, ২০২১

কুমুদিনী হাসপাতালে সরকারি নারী কর্মকর্তাকে শ্বাসরোধে হত্যা

 

নিজস্ব প্রতিনিধি :

টাঙ্গাইল জেলা কালচারাল কর্মকর্তা খন্দকার রেদওয়ানা ইসলামকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করার অ‌ভি‌যোগ উ‌ঠে‌ছে। শনিবার (২৭ মার্চ) বিকেলে মির্জাপুর কুমুদিনী হাসপাতালের একটি ভিআইপি কক্ষ থেকে তার লাশ উদ্ধার করে‌ছে পু‌লিশ। ত‌বে পু‌লি‌শের ধারণা তা‌কে শ্বাস‌রোধ ক‌রে হত্যা করা হ‌য়ে‌ছে। এ ঘটনায় তার স্বামী পলাতক র‌য়ে‌ছে।

মির্জাপুর সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার দীপংকর ঘোষ জানান, রেদওয়ানা প্রস্রব ব্যথা নিয়ে গত ২২ মার্চ মির্জাপুর কুমুদিনী হাসপাতালে ভর্তি হন। প‌রে ওই দিনই তিনি একটি কন্যা সন্তান জন্ম দেন। এরপর থেকে কন্যা সন্তানটি আইসিইউ (নিবিড় পরিচর্যা ইউনিট) রাখা হয়।

গত চারদিন আগে রেদওয়ানা ইসলামকে চিকিৎসকরা ছুটি দিয়ে দেন। কিন্তু জন্ম নেয়া মেয়ে হাসপাতালে থাকার কারণে রেদওয়ানা হাসপাতালেই একটি কক্ষ নিয়ে থা‌কেন।

শনিবার সকালে তার স্বামী মিজান আসেন হাসপাতালে রেদওয়ানার সঙ্গে দেখা করতে। বিকেলে হাসপাতালের নার্স অনুরাধা রেদওয়ানার কক্ষ বাইরে থেকে লক (তালা) দেখতে পেয়ে কর্তৃপক্ষকে জানান। পরে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ কক্ষের বিকল্প চাবি দিয়ে তালা খুলে ভেতরে রেদওয়ানার লাশ দেখতে পেয়ে পুলিশে খবর দেয়া হয়। পরে পুলিশ লাশটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে পাঠায়।

টাঙ্গাইলের জেলা প্রশাসক ড. মো. আতাউল গনি জানান, তিনি ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে তাকে তার স্বামী শ্বাসরোধ করে হত্যা করে পালিয়ে গেছে। এ ঘটনায় মামলা দায়ের করা হবে।

 

জাগো সখীপুর /এস এম

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

Like Us On Facebook

Facebook Pagelike Widget