টাঙ্গাইলে অধ্যক্ষকে কুপিয়ে হত্যা, ২ জনের মৃত্যুদণ্ড

প্রকাশিত: ৯:০৬ পূর্বাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১৪, ২০২২

টাঙ্গাইলে অধ্যক্ষকে কুপিয়ে হত্যা, ২ জনের মৃত্যুদণ্ড

 

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ

 

টাঙ্গাইলের সখীপুরের পলাশতলী মহাবিদ্যালয়ের অধ্যক্ষ জামাল হোসেন ঠান্ডু হত্যা মামলায় ২ জনের মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন আদালত। আজ বুধবার বেলা ১১টার দিকে টাঙ্গাইলের স্পেশাল জজ আদালতের বিচারক বেগম শাহানা হক সিদ্দিকা এ রায় দেন।

 

 

এ ছাড়াও দণ্ডপ্রাপ্ত ২ জনকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। এ হত্যা মামলায় অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় ৩ জনকে বেকসুর খালাস দিয়েছেন আদালত।

 

 

 

দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন—সখীপুরের ফুলবাগ গোবরচাকা গ্রামের মৃত হাসান আলীর ছেলে মিনহাজুর রহমান মিন্টু, একই গ্রামের সূর্য আলীর ছেলে আব্দুল মালেক শুকুর। অন্যদিকে এ মামলা থেকে খালাসপ্রাপ্তরা হলেন—শমশের আলী, মোহাম্মদ মাসুদ এবং মোহাম্মদ নান্নু মিয়া।

 

 

রাষ্ট্রের পক্ষের আইনজীবী মোহাম্মদ মহসিন সিকদার বলেন, ২০১১ সালের ২০ অক্টোবর অধ্যক্ষ জামাল হোসেন ঠান্ডু সখীপুরের পলাশতলী মহাবিদ্যালয় থেকে বাড়ির উদ্দেশ্যে রওনা হন। তিনি বৈল্লারপুর এলাকায় পৌঁছালে পূর্ব শত্রুতার জেরে মিনহাজুর রহমান মিন্টুর নেতৃত্বে জামাল হোসেনকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়। এ ঘটনায় ওই দিন জামাল হোসেনের স্ত্রী পারভীন বেগম বাদী হয়ে সখীপুর থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন। ২০১২ সালের ২৬ ডিসেম্বর জেলা গোয়েন্দা পুলিশের উপপরিদর্শক (এসআই) আইয়ুব আলী ৫ জনের নামে আদালতে অভিযোগপত্র জমা দেন।

 

 

আদালত সাক্ষ্য প্রমাণের ভিত্তিতে বুধবার ২ জনকে মৃত্যুদণ্ড ও অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় ৩ জনকে বেকসুর খালাস দিয়েছেন। রায় ঘোষণার সময় মিন্টু আদালতে উপস্থিত ছিলেন এবং শুকুর পলাতক ছিলেন।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

বিজ্ঞাপন

Like Us On Facebook

Facebook Pagelike Widget