সখীপুরে বনে লাকড়ি কাটতে গিয়ে স্ত্রীকে কুপিয়ে মারলেন স্বামী  

প্রকাশিত: ১০:০৯ পূর্বাহ্ণ, নভেম্বর ১৯, ২০২২

সখীপুরে বনে লাকড়ি কাটতে গিয়ে স্ত্রীকে কুপিয়ে মারলেন স্বামী  

সখীপুর (টাঙ্গাইল) সংবাদদাতাঃ

সখীপুরে স্বামীর দায়ের কোপে স্ত্রী খুনের ঘটনা ঘটেছে। শনিবার (১৯ নভেম্বর) সকাল সোয়া ৯টার দিকে উপজেলার কৈয়ামধু গ্রামে এ নৃশংস হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। স্ত্রী শাহিদাকে (৪০) দা দিয়ে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে স্বামী সোনা মিয়া পালিয়ে যান।

প্রত্যক্ষদর্শী ও স্থানীয়রা জানান, শনিবার সকাল সোয়া ৯টার দিকে স্বামী সোনা মিয়া তাঁর স্ত্রী শাহিদাকে নিয়ে লাকড়ি কাটতে বনে যান। এ সময় স্বামী-স্ত্রী পারিবারিক বিষয় নিয়ে তর্কা-তর্কিতে জড়িয়ে পড়েন। একপর্যায়ে সোনামিয়া উত্তেজিত হয়ে দা দিয়ে স্ত্রীকে এলোপাতাড়ি কোপাতে থাকেন। মৃত্যু নিশ্চিত করে সোনামিয়া পালিয়ে যান। পরে পুলিশ গিয়ে শাহিদার লাশ উদ্ধার করে।

শাহিদার ছেলে সাজ্জাদ মিয়া বলেন, বাবা ঢাকায় থাকেন। ঢাকা থেকে রবিবার গ্রামে এসে অপর স্ত্রীর বাড়িতে ছিলেন। সোমবার তিনি আমাদের বাড়িতে আসেন। শনিবার সকালে বাবা-মা একসঙ্গে সকালের খাবার খেয়ে লাকড়ি কাটতে বনে যান। সেখানে ঝগড়া করে বাবা আমার মাকে দা দিয়ে কুপিয়ে খুন করেন।

ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী প্রতিবেশী এলেবানু বলেন, আমিও লাকড়ি কুড়াতে জঙ্গলে গেছিলাম। হঠাৎ দেখি সোনা মিয়া তার বউকে কোপাইতেছে, আর বউ দৌড় পাড়তাছে (দৌড়াচ্ছে)। পরে আমি আইয়া কইলে লোকজন আগাইয়া যায়।

স্থানীয় ইউপি সদস্য শাহাদত হোসেন বলেন, সোনা মিয়া কয়েকটি বিয়ে করেছেন। তিনি ঢাকা থেকে কয়েক দিন আগে গ্রামে আসেন। তাদের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে পারিবারিক বিরোধ রয়েছে।

সখীপুর থানার উপপরিদর্শক দেলোয়ার হোসেন বলেন, আমি ঘটনাস্থলে আছি। শাহিদার শরীরে বিভিন্ন স্থানে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কোপানোর চিহ্ন রয়েছে। পারিবারিক বিরোধের জের ধরে এমন ঘটনা ঘটেছে বলে ধারণা করছি।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

বিজ্ঞাপন

Like Us On Facebook

Facebook Pagelike Widget